corona muslim nari

১৪শ কিঃ মিঃ স্কুটিতে পাড়ি দিয়ে ছেলেকে লকডাউন মুক্ত করলেন এক পর্দাশীল নারী

আন্তর্জাতিক ব্রেকিং নিউজ ভাইরাল

১৪শ কিঃ মিঃ সড়ক স্কুটিতে পাড়ি দিয়ে ছেলেকে লকডাউন মুক্ত করলেন এক পর্দাশীল নারী

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব রুখতে কার্যত গোটা বিশ্বে লকডাউন চলছে। এতে প্রতিবেশী দেশ ভারতেও চলছে ২১ দিনের লকডাউন। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া লোকজনের ঘরের বাইরে যাওয়া মানা। তাই বলে সন্তান ‘বিপদে’ আছে জেনে মা-তো চুপচাপ বসে থাকতে পারেন না। তাইতো তিন দিন স্কুটি চালিয়ে ১৪০০ কিলোমিটার সড়ক পাড়ি দিয়ে আরেক রাজ‌্যে আটকে পড়া ছেলেকে উদ্ধার করলেন ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশের এক মা।

অনলাইনে ফ্রীতে ইনকাম করতে এখানে ক্লিক করুন >>

জানা গেছে, কারণ জানিয়ে স্থানীয় পুলিশের অনুমতি নিয়ে তেলেঙ্গানা রাজ‌্য থেকে গত সোমবার যাত্রা শুরু করেন মা রাজিয়া বেগম (৪৮)। উদ্দেশ‌্য পার্শ্ববর্তী রাজ‌্য অন্ধ্রপ্রদেশে আটকে পড়া ছেলেকে বাড়ি নিয়ে আসা। আর তা সফলভাবে শেষে করে গত বুধবার ছেলেকে নিয়ে বাড়ি ফিরেছেন রাজিয়া।

এ বিষয়ে রাজিয়া বেগমের বলেন, দুইচাকার যান স্কুটি চালিয়ে এতো রাস্তা পাড়ি দেওয়া একজন নারীর পক্ষে সহজ ছিল না, তবে ছেলেকে ঘরে আনার দৃঢ়প্রতিজ্ঞা আমার সব ভয়কে দূরে ঠেলে দিয়েছিল। যাত্রা পথে আমি এমন সময় পার করেছি যখন দেখেছি রাতের আঁধারে কোথাও কেউ নেই। চারিদিকে শুধু নীরবতা।

জানা যায়, রাজিয়া বেগম নিজামাবাদ সরকারি স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা। তার দুই সন্তানের একজন প্রকৌশলী গ্রাজুয়েট, অন‌্যজন ১৯ বছর বয়সী নাজিমুদ্দিন।

 

বেষ্ট ফ্রী মোবাইল ভিডিও এডিটর এখনি ডাউনলোড করতে নিচের চবিতে ক্লিক করুন >>

Best Mobile Video editor
Best Mobile Video editor

Download now

নাজিমুদ্দিন বন্ধুকে রেখে আসতে গত ১২ মার্চ নাজিমুদ্দিন তেলেঙ্গানার নিলোরের রাহামাতাবাদে যান। কিন্তু এর মধ‌্যে ভারতজুড়ে লকডাউন ঘোষণায় তিনি সেখানে আটকা পড়েন। আর ছোট ছেলেকে ফিরিয়ে আনতে পুলিশের ভয়ে বড় ছেলেকে পাঠাননি রাজিয়া বেগম। সেখানে কীভাবে পৌঁছানো যায় সে পরিকল্পনায় প্রথমে গাড়ির কথা মাথায় এলেও, পরে তা ঝেরে ফেলে দুই চাকার স্কুটিতেই ভরসা খুঁজে পান।

অবশেষে স্কুটি চালিয়েই ভিন রাজ্যে আটকে পড়া ছেলেকে ঘরে ফিরিয়ে আনতে সফল হন দৃঢ় প্রত‌্যয়ী এই নারী।

সূত্র: নিউজ১৮ বাংলা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *